মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

অফিস সম্পর্কিত

বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড গঠনের পর থেকে কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতিসমুহ ও গ্রামভিত্তিক প্রাথমিক সমিতিসমুহের বিকাশ ও উন্নয়নে কার্যকর ভূমিকা রেখে চলেছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান  1972 সনে ষাটের দশকের শুরুতে প্রখ্যাত সমাজ বিজ্ঞানী ড. আখতার হামিদ খাঁন  কর্তৃক প্রবর্তিত ‘কুমিল্লা মডেল’ বা ‘‘দ্বি-স্ত সমবায় ব্যবস্থার’’ সফলতাদৃষ্টে কর্মসূচিটি দেশব্যাপি সম্প্রসারণের  লক্ষ্যে সমন্বিত পল্লী উন্নয়ন কর্মসূচি (আইআরডিপি) গ্রহণ করেন। এ কর্মসূচি পল্লী এলাকার জনগণকে সংগঠিত করে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে পল্লী উন্নয়নের লক্ষ্যে বহুমাত্রিক  প্রয়াস গ্রহণ করে: অধিক খাদ্য উৎপাদন, আধুনিক কৃষি পদ্ধতির সম্প্রসারণ, উন্নত কৃষি ব্যবস্থাপনা, কৃষি পণ্যের বাজারজাতকরণ, আধুনিক সেচ ব্যবস্থার সম্প্রসারণ প্রভৃতির মাধ্যমে কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি, খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং পল্লী অঞ্চলের কর্মসংস্থান সৃজন। আইআরডিপি এর অবদান বিবেচনায় ১ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় পল্লী উন্নয়ন ও দারিদ্র্য দূরীকরণের কর্মকৌশল হিসেবে ব্যাপক আঙ্গিকে কর্মসূচিটি গ্রহণ করা হয় ও এর অনুকূলে অর্থ বরাদ্দ করা হয়। আইআরডিপি’র মাধ্যমে পল্লী উন্নয়নের লক্ষ্যে Multi Dimensional and Multi Sectoral Strategy গ্রহণ করা হয়। সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশে এ কর্মসূচি গ্রামীণ সংগঠন সৃষ্টি, নেতৃত্বের বিকাশ, কৃষির আধুনিকায়ন, উৎপাদন বৃদ্ধি, দারিদ্র বিমোচন, নারীর ক্ষমতায়ন এবং নিজস্ব সঞ্চয় জমার মাধ্যমে পুঁজি গঠন করে ক্ষুদ্র ঋণের ভিত্তি রচনায় উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখে। পরবর্তীতে আইআরডিপি’র সাফল্যকে ভিত্তি করে  এক অধ্যাদেশের মাধ্যমে স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের (Body Corporate) মর্যাদায় 1982 সনে সমন্বিত পল্লী উন্নয়ন কর্মসূচি (আইআরডিপি) বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড (বিআরডিবি)-এ রুপান্তরিত হয়। বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড অধ্যাদেশ ১৯৮২ মহামান্য আপিল বিভাগ কর্তৃক বাতিল হওয়ায় গত ৭মার্চ ২০১৮ তারিখ বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড আইন, ২০১৮ নূতন করে গেজেট আকারে প্রকাশিত হয়।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter